আলমারাই চিজ

Status: In Stock

চিজ কি ভাবে খাওয়াবেন

  • আমাদের হোমমেড সেরেলাক এর সাথে
  • হোমমেড সুজির সাথে
  • খিচুড়ি মিক্সের সাথে
  • পরাটা বেজে দিতে পারেন
  • পোলাও রান্না করে দিতে পারেন
  • চিজ ফিংগার করে দিতে পারেন
  • বাচ্চাদের যে কোন খাবারে এটা দিতে পারেন
  • পেন কেক করে দিতে পারেন।
  • নুডুলস /পাস্তার সাথে
  • আলু ও চিকেন ম্যাশ এর সাথে
  • ওরটস এর সাথে

 

  • ৮পিস ২৫০টাকা
Deals ends in:

280৳ 

Buy Now Compare

চিজ খাওয়ার উপকারীতা

  • চিজে রয়েছে প্রচুর পরিমান ক্যালসিয়াম।যা দাঁতকে শক্ত ও মজবুত করে তুলে এবং ক্যাভিটি থেকে দাঁতকে রক্ষা করবে। এছাড়া দাঁত ক্ষয় রোধ করবে চিজ।
  • চিজ ক্যান্সার প্রতিরোধক হিসেবেও খুব ভালো কাজ করে। চিজে রয়েছে ” Conjugated linoleic acid ” নামক উপাদান যা, ক্যন্সার প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও চিজে রয়েছে ভিটামিন “বি” যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলে।
  • চিজে প্রচুর পরিমাণ ন্যাচারাল ফ্যাট রয়েছে। যা আপনার বাচ্চার ওজন বাড়াতে সহায়তা করবে। যারা খুব সহজে সাইড ইফেক্ট ছাড়া ওজন বাড়াতে চাইছেন।তারা বেশি করে চিজ খেতে পারেন।
  • চিজে বিদ্যমান ক্যালসিয়াম, মিনারেলস, ভিটামিনস ও প্রোটিন আপনার বাচ্চার হাড় ক্ষয় রোধ করে হাড়কে করবে শক্ত। প্রোটিন আপনার বাচ্চার উচ্চতা বাড়াতে ও সহায়তা করবে ( ১৮ বছরের নিচে বয়স হলে)।
  • এতে আছে ভিটামিন বি। যা হাই ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করে।
  • চিজ ত্বকের জন্য ও বেশ ভালো ও উপকারী। এতে উপস্থিত ভিটামিন বি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বককে করবে দীপ্তিময় ও সুন্দর।
  • যাদের মাইগ্রেনের ব্যাথা বা সমস্যা রয়েছে, তারা চিজ খেলে ভালো ফল পাবেন। কেননা, ক্যালসিয়াম মাইগ্রেনের ব্যাথা সারাতে কার্যকরী আর চিজে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম রয়েছে।
  • চিজে রয়েছে অ্যামাইনো এসিড যা স্ট্রেস বা দুশ্চিন্তা তাড়াতে সাহায্য করে। এই এসিডের কারণে রাতের ঘুম ভালো হয়। তাই, “insomnia বা অনিদ্রা সারাতে জনপ্রিয় চিজ।
  • চিজে উপস্থিত প্রোটিন আপনার বাচ্চার চুলের জন্য খুব উপকারী। চুলের ফাঁটা বা খসখসে ভাব সহজেই দূর করতে সক্ষম চিজ!
pcs

, , ,

Reviews

There are no reviews yet.

Only logged in customers who have purchased this product may leave a review.

0
Back to Top
Change
Product has been added to your cart